• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ইউনিয়ন নির্বাচন: বালিয়াতলীতে কেন্দ্র দখলের পায়তারা করছেন নৌকার প্রার্থী

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট8:02 pm, March 27, 2018

পটুয়াখালীর কলাপাড়া ‍উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ভোট গ্রহণের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততোই যেন নির্বাচনী মাঠ উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। ঘটছে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে মারামারিসহ বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনা।

মঙ্গলবার (২৭ মার্চ ) দুপুরে কলাপাড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল কবির ঝুনু বলেন- আগামী ২৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় কলাপাড়া উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের নির্বাচন। ওই নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া ও তালিকাভুক্ত এজেন্টদের দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়ার জন্য বাড়িতে গিয়ে হুমকি ও প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ তোলা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়- উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্রে এজেন্টদের বিএনপির পক্ষে কাজ না করার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। মিঠাগঞ্জের আরামগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আলীগঞ্জ আলহাজ মাহবুবুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পূর্ব মধুখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং মিঠাগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সন্ত্রাসী জড়ো করেছে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। প্রতিদিন সন্ধ্যার পরে মোটরসাইকেল মহড়া দেওয়া হচ্ছে। ধানখালীতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর ক্যাডাররা মরিচবুনিয়া, মধুপাড়া ও ধানখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র দখলের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে।

এসব অভিযোগ ২৫ মার্চ আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক এক সভায় স্পষ্টভাবে উপস্থাপন করা হলেও এখন পর্যন্ত পরিস্থিতির কোনো উন্নতি ঘটেনি বলে দাবি করা হয় সংবাদ সম্মেলনে।

পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা এবং সুষ্ঠু ও বহিরাগতমুক্ত ভোটের পরিবেশ সৃষ্টির দাবি জানান বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা।

সংবাদ সম্মেলনে এ সময় মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী মনিবর রহমান খন্দকার, ডালবুগঞ্জের মুসফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

তবে এসব অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা দাবি করেছেন, নিশ্চিত পরাজয় যেনে মাঠে প্রচার-প্রচারণা বাদ দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।

নির্বাচনের বিষয়ে কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, নির্বাচনে কোনো ধরনের অনিয়ম করার যেমন সুযোগ নেই তেমনি অপ্রীতিকর কোনো ধরনের ঘটনা ঘটতে দেওয়া হবে না। যারা নিয়মের বাইরে যাবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তানভীর রহমান ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুর রশীদ জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচনের লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খল পরিবেশ করার সুযোগ নেই।



লাইভ



টপ