• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

৪ বছরেও শেষ হয়নি রাজাপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণ কাজ

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট11:00 am, March 22, 2018

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের নির্মাণ কাজ গত ৪ বছর আগে শুরু হলেও তা এখনো শেষ হয়নি। ফলে শুষ্ক মৌসুমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেড়েই চলেছে। সাম্প্রতিকালে উপজেলা শহরে ছোট-বড় মিলিয়ে অন্তত ৬টি অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়।

এমতাবস্থায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- ২০১৪ সালের জুলাই মাসে ১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটির নির্মাণ কাজ শুরু করেন কর্তৃপক্ষ। নির্মাণ শুরুর ১ বছরের মধ্যেই ভবন ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ সম্পন্ন হয়। কিছুদিন যেতে না যেতেই ২০১৫ সালের মে মাসে স্টেশনটির উত্তর পাশের সীমানা প্রাচীর ধসে পড়ে।

নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহারের ফলেই এ ঘটনা ঘটেছে। তাছাড়া বর্তমানে স্টেশনটি ব্যবহার না হওয়ায় কারণে উদ্বোধনের আগেই তা বেহাল হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

এদিকে, গত সোমবার রাতে নবনির্মিত ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে মাত্র ১ কিলোমিটার দূরত্বে উপজেলা আলগী গ্রামে মো. আসলাম হোসেন খানের বসতঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ সময় ঝালকাঠি থেকে দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই বসতঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, রাজাপুর স্টেশনটি চালু থাকলে তাকে নিঃস্ব হতে হতো না। এ সময় অবিলম্বে স্টেশনটি চালুর দাবি জানান তারা।

ঝালকাঠি স্টেশন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান বরিশালটাইমসকে জানান, ২০১৭ সালের প্রথম দিকে স্টেশনটির জন্য বরাদ্দ হওয়া একটি নতুন গাড়ি ও পাম্প ঝালকাঠি স্টেশনে পড়ে আছে।

ঝালকাঠি জেলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী হারুন অর রশীদ বরিশালটাইমসকে জানান, রাজাপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের জন্য ১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। নির্মাণসামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধির কারণে নির্মাণ সম্পন্ন করতে আরও ১৫ লাখ টাকা দাবি জানান ঠিকাদারিপ্রতিষ্ঠান।

আমরা ইতোমধ্যেই চাহিদাপত্র ঢাকায় পাঠিয়েছি। বরাদ্দ পেলেই বাকি কাজ সম্পন্ন করে স্টেশনটি হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।’



লাইভ



টপ